লেকচার-০২ (বিসিএস প্রিলি-আন্তর্জাতিক)

 

শিয়া মহাদেশের গুরুত্বপূর্ণ তথ্যঃ

 

এশিয়া মহাদেশ পৃথিবীর বৃহত্তম মহাদেশ। এর আয়তন প্রায় ৪ কেটি ৪৪ লক্ষ ৯৩ হাজার বর্গ কি.মি।

 

পৃথিবীর প্রায় ৩০ শতাংশই এশিয়ার অন্তর্গত।

 

এশিয়ার বৃহত্তম দেশ- চীন।

 

 

এশিয়ার ক্ষুদ্রতম দেশ- মালদ্বীপ।

 

এশিয়ার বৃহত্তম মরুভূমি- গোবি মরুভূমি।

 

এশিয়ার বৃহত্তম সাগর- চীন সাগর।

 

এশিয়ার বৃহত্তম হ্রদ- কাম্পিয়ান।

 

এশিয়ার দীর্ঘতম নদী- ইয়াংসিকিয়াং (চীন)

 

সর্বোচ্চ পর্বত শৃঙ্গ- মাউন্ট এভারেস্ট (৮,৮৪৪.৪৬ মি.)

 

এশিয়া মহাদেশের উত্তর আমেরিকা থেকে পৃথক হয়েছে- বেরিং প্রণালী দ্বারা।

 

আফ্রিকা মহাদেশ পৃথক হয়েছে- লোহিত ও সুয়েজখাল দ্বারা।

 

এশিয়া ইউরোপ হতে পৃথক করেছে- বসফরাস প্রণালী।

 

এশিয়া এবং ইউরোপকে একত্রে বলা হয়- ইউরোশিয়া।

 

তুরস্ক দেশটি ইউরোপ এবং এশিয়ার মাঝে অবস্থিত।

 

এশিয়ার সর্বউত্তরের বিন্দু- চেলুসিকিনের অগ্রভাগ।

 

একদেশ দুই নীতি কার্যকর- চীনে।

 

ফালুগং যে দেশের নিষিদ্ধ সংগঠন- চীন।

 

অং সান সূচী মায়ানমারের নেত্রী। দলের নাম (NLD) [National League of Democracy].

 

এশিয়ার যে দেশে সম্প্রতিক (২০০৬ সালে) সামরিক অভূত্থান ঘটে- থাইল্যান্ড।

 

এশিয়ার সর্বশেষ স্বাধীনদেশ- পূর্বতিমুর।

 

তিব্বতকে বলা হয় নিষিদ্ধ দেশ যেটি চীনের অন্তর্ভূক্ত।

 

তিব্বতের ধর্মীয় নেতার উপাধি- দালাইলামা।

 

পাকাতিয়া প্রদেশটি- আফগানিস্থানে অবস্থিত।

 

বিরোধপূর্ণ বেলুচ প্রদেশটি পাকিস্থানে অবস্থিত। [সাম্প্রতিক সময়ে আকবর খাঁন বুগতিকে হত্যা করা হয়]

 

কিরকুক, ফালুজা প্রদেশ দুটি ইরাকে অবস্থিত। [উলেখ যে ইরাকে মোট ১৮ টি প্রদেশ রয়েছে]

 

আলোচিত ভলকা রিপোর্টে ইরাকে তেলের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচীতে ব্যাক্তি বিশেষ সুবিধা গ্রহনের আলোচনায় ভারতের নটবর সিংহ পদত্যাগ করতে বাধা হন।

 

কনফুসিয়াস ছিলেন- চীনের দার্শনিক।

 

জাভা মানুষের উদ্ভব- ইন্দোনেশিয়ায়।

 

পিংকি মানুষের উদ্ভব- চীনে।

 

হাইডেল বার্গ মানুষের উদ্ভব- জার্মানীতে।

 

এশিয়ার বৃহত্তম তৈল খনি- সৌদি আরব গাওয়ার

 

মোট মজুদের ২৫% সৌদি আরব।

 

 ‘আদম চিহ্নবা আদম শৃঙ্গ- শ্রীলংকায় অবস্থিত।

 

ইস্পাহান ও বুশেহর শহরে ইরানের পরমাণবিক জালানী কেন্দ্র গুলো অবস্থিত।

 

কারবালা শহরটি ইরাকে ফোরাত নী তীরে অবস্থিত।

 

বেথেলহেম জায়গাটি জেরুজালেম নিকট অবস্থিত।

 

গোলান মালভূমি- সিরিয়া ও ইসরাঈল সীমান্তে অবস্থিত। ১৯৬৭ সালের যুদ্ধে ইসরাঈল এটি দখল করে নেয়।

 

সিনাই উপত্যকা মিশরে অবস্থিত। ১৯৬৭ সালের যুদ্ধে ইসরাঈল এটি দখল করে নেয়। পরে শান্তি চুক্তির বিনিময়ে এটি ফেরত দেয়।

 

মোহেনজোদেরো সভ্যতা পাকিস্থানে গড়ে উঠেছিল।

 

প্রাচীন সিন্ধু সভ্যতার নিদর্শন এখানে রয়েছে।

 

মেসোপটেমিয়া সভ্যতা- ইরাকে গড়ে উঠেছিল।

 

এশিয়ার যে দেশে NATO শান্তি রক্ষী বাহিনী কর্মরত- আফগানিস্থান [লেবানন- ইসরাঈল সীমান্তে NATO  বাহিনী নিয়োগের চুক্তি হয়েছে]

 

এশিয়ার দীর্ঘতম নদী ইয়াংসিকিয়াং চীনে (৫৯৮০ কি.মি)।

 

চীনের দুঃখ- হোয়াংহো।

 

চীনের শস্য প্রদেশ- হুনান।

 

পৃথিবীর শুল্কমুক্ত দেশ- হংকং।

 

পৃথিবীর বৃহত্তম মুসলিম দেশ- ইন্দোনেশিয়া।

 

বিশ্বের ব্যস্ততম সমুদ্র বন্দর- সিংগাপুর সমুদ্র বন্দর।

 

দি টাইগার অব বাইসাইকেল বলা হয়- ভিয়েতনাকে।

 

জাতিসংঘের নতুন মহাসচিব বান কি মুন শপথ গ্রহণ করেন- ১৫ ডিসেম্বর ২০০৬।

 

মাওবাদীদের সাথে নেপাল সরকারের চুক্তি হয় ২২ নভেম্বর ২০০৬।

 

উত্তর কোরিয়া পরমাণবিক বোমার বিস্ফোরন ঘটায় ৯ অক্টোবর ২০০৭।

 

অঞ্চল ভিত্তিক এশয়িার রাষ্ট্র পরিচিতি

 

মধ্যপ্রাচ্য: সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, কাতার, ওমান, বাগরাইন, ইরান, ইরাক, জর্ডান, লেবানন, তুরস্ক, সিরিয়া, ইয়েমেন, ফিলিস্থান ও ইসরাইল।

 

নিকট প্রাচ্য: সিরিয়া, লেবানন, জর্ডান, ইসরাইল ও সাইপ্রাস।

 

দূর প্রাচ্য: চীন, জাপান, তাইওয়ান, উত্তর কোরিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া ও ফিলিপাইন।

 

দক্ষিণ এশিয়া: বাংলাদেশ, ভুটান, মালদ্বীপ, নেপাল, ভারত, পাকিস্থান, শ্রীলংকা, আফগানিস্থান ও মায়ানমারকে।

 

মধ্য এশিয়ার মুসলিম প্রজাতন্ত্র সমূহ: কাজাকিস্থান, তাজিকিস্থান, উজবেকিস্থান, তুর্কমেনিস্থান, কিরিঘিজস্থান ও আজারবাইজান।

 

দক্ষিণ পূর্ব- এশিয়া: লাওস, কম্বোডিয়া, ইন্দোনেশিয়া, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, ব্রনাই, ফিলিপাইন, ভিয়েতনাম ও মায়ানমার।

 

দক্ষিণ আমেরিকা-

 

আজেন্টিনা, বলিভিয়া, ব্রাজিল, চিলি, কলম্বিয়া, ইকুয়েডর, গায়েনা, প্যারাগুয়ে, পেরু, সুরিনাম, উরুগুয়ে ও ভেনিজুয়েলা।

 

ল্যাটিন আমেরিকা-

 

ব্রাজিল, আজেন্টিনা, উরুগুয়ে ও ভেনিজুয়েলা।

 

মধ্য আমেরিকা-

 

কোস্টারিকা, এল সালভেদর, গুয়েতেমালা, হান্ডুরাস, পানামা ও নিকারাগুয়া।

 

পূর্ব ইউরোপ-

 

রুমানিয়া, বুলগেরিয়া, হাঙ্গেরী, জার্মানী, পোল্যান্ড, আলবেনিয়া, ক্রয়েশিয়া, চেক প্রজাতন্ত্র, ¯স্লভাকিয়া, স্লভেনিয়া ও বসনিয়া-হার্জেগোভিনা।

 

ক্যারিবিয়ান অঞ্চল (পশ্চিম ভারতীয় দ্বীপপুঞ্জ)-

 

বাহামা দ্বীপপুঞ্জ, বার্বাডোজ, ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্র, গ্রানাডা, হাইতি, জ্যামাইকা, ত্রিনিদাদ, সেন্ট লুসিয়া, টোবাগো এবং কিউবা।

 

ওশেনিয়া-

 

সামগ্রিকভাবে প্রশান্ত মহাসাগর দ্বীপগুলো যথাঃ অষ্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, ফিজিং, পাপুয়া, নিউগিনি, টোঙ্গা এবং পশ্চিম সামোয়া

 

মাইক্রনেশিয়া-

 

মোলেনিশিয়ার উত্তর দিকের দ্বীপসমূহ ও নিরক্ষরেখার নিকটবর্তী দ্বীপসমূহ এর অন্তর্গত। এগুলো হচ্ছে ক্যারোলিনা দ্বীপপুঞ্জ, মার্শাল দ্বীপপুঞ্জ, কিরিবাতি, নাউরু এবং ও সিয়াম।

 

মেলোনেশিয়া-

 

অষ্ট্রেলিয়ার উত্তর-পূর্ব দিকের দ্বীপসমূহ, যথা- ফিজি, ভানুয়াতু, নিউগিনি, সালোমান দ্বীপপুঞ্জ, কিরিবাতি, নাউরু।

 

পলিনেশিয়া-

 

মধ্য ও প্রশান্ত মহাসাগরের দ্বীপসমূহ যথা: সামোয়া, টোঙ্গা, ইষ্টার, তাহিতি, টুভ্যালু ও কুক দ্বীপপুঞ্জ।

 

ককেসাস অঞ্চল-

 

জর্জিয়া, আর্মেনিয়া, আজারবাইজান, চেচনিয়া প্রভৃতি দেশ।

 

বাল্টিক রাষ্ট্র সমূহ ও রাজধানী নাম-

 

লিথুনিয়া-ভিলনিয়াস, লাটভিয়া-রিগা, এস্থোনিয়া-তালিন।

 

বলকান রাষ্ট্র সমূহ-

 

রুমানিয়া, বুলগেরিয়া, আলবেনিয়া, বসনিয়া-হার্জোগোভিনা, ক্রয়েশিয়া, শোভেনিয়া, মেসিডোনিয়া, গ্রীস, মন্টিনিগ্রো, সার্বিয়া কসোভো।

 

সি.আই.এস ভুক্ত রাষ্ট্র সমূহ-

 

রাশিয়া, ইউক্রেন, বেলারুশ, মোলদাভিয়া, আর্মেনিয়া, কাজাকিস্থান, তাজিকিস্থান, উজবেকিস্থান, কিরিঘিজিস্থান, তুর্কমেনিস্থান ও জর্জিয়া (আজারবাইজান সি আই এস থেকে বেরিয়ে গেছে এবং জর্জিয়া যোগ দিয়েছে)।

 

আরব উপসাগরীয় রাষ্ট্রসমূহ-

 

সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, কাতার, ওমান, বাহরাইন ও ইয়েমেন।

 

আফ্রিকা মহাদেশরি সাধারণ গুরুত্বপূর্ণ তথ্যঃ

 

পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম মহাদেশ- আফ্রিকা।

 

আয়তনে আফ্রিকার বৃহত্তম দেশ সুদান।

 

জনসংখ্যায় বৃহত্তম দেশ নাইজেরিয়া।

 

আফ্রিকার প্রায় মধ্যভাগ দিয়ে অতিμম করেছে বিষুব রেখা।

 

পৃথিবীর সবচেয়ে বেশী হীরা উত্তলিত হয় কিম্বালী খনি (দক্ষিণ আফ্রিকা প্রায় ৬০%)।

 

আফ্রিকার তথা পৃথিবীর বৃহত্তম নদী নীল নদ (দশটি দেশের উপর দিয়ে প্রবাহিত)।

 

আফ্রিকার সর্বোচ্চ শৃঙ্গ কিলিমানজারো

 

পৃথিবীর বৃহত্তম মরুভূমি আফ্রিকা মহাদেশের সাহারা মরুভূমি।

 

 Horns of Africa বলা হয়- ইথিওপিয়াকে/ সোমালিয়া।

 

পৃথিবীর সর্বাপেক্ষা খার্বাকায় জাতি বাস করে আফ্রিকার কঙ্গোতে (পিগমি জাতি)।

 

আফ্রিকার বৃহত্তম হ্রদ ভিক্টোরিয়া।

 

পৃথিবীর বৃহত্তম জলপ্রপাত নায়াগ্রা

 

সাভানা তৃণভূমি কেনিয়া, সুদান, তানজানিয়া, জিম্বাবুয়েতে অবস্থিত।

 

রাজনৈতিক তথ্য:

 

আফ্রিকার দুঃখ বলা হয় জাতিগত বিভেদ।

 

ইসলামিক কোর্টস অব মিলেশিয়া সোমালিয়ার বিদ্রোহী গ্রুপ

 

ইথিওপিয়ার সেনাবাহিনী সোমালিয়ার বিদ্রোহী গ্রুপের সাথে যুদ্ধে জড়িত।

 

ইরিত্রিয়া পূর্বে যে দেশের অংশ ছিল- ইথিওপিয়া।

 

দারফুর সংকট সৃষ্টি হয়- সুদানে।

 

জানজাবিদ মিলশিয়া সুদানের বিদ্রোহী গ্রপ।

 

মিশর সুয়েজ খালকে জাতীয় করণ করে- ১৯৫৬ সালে।

 

লকারবি বিমান দুর্ঘটনা ঘটেছিল- ১৯৮৮ সালে।

 

নেলসন ম্যান্ডেলার রাজনৈতিক দলের নাম- ANC (১৯৯২ সালে গঠিত)।

 

আফ্রিকার ক্যাস্ট্রো বলা হয় জিম্বাবুয়ের- রবার্ট মুগার কে।

 

WHO এর রিপোর্ট অনুযায়ী নাইজেরিয়ার লোকেরা সব থেকে কম ধুমপান করে।

 

আফ্রিকার যে দেশ বাংলাকে রাষ্ট্রীয় ভাবে সরকারী ভাষার মর্যাদা দেওয়া হয়েছে- সিয়েরালিয়ন।

 

আফ্রিকার যে অঞ্চল বাংলাদেশী শান্তি রক্ষী নিহত হয়েছে কঙ্গোর ইতুরি প্রদেশ।

 

 Pearl of Africa নামে পরিচিত- উগান্ডা।

 

ঘানার পূর্ব নাম- গোল্ড কোস্ট।

 

পিরামিড যে দেশের প্রধান আকর্ষণীয় স্থান মিশর (ফারাও সম্রাটের আমলে নির্মিত)।

 

ফেজ টুপির বিখ্যাত মরক্কোর- ফেজ নগর।

 

Share

Print

BCS Preli Preparation
Bengali
English
Mathematics
Bangladesh
International
Daily Science
Previous BCS Questions
Questions of Bank Job
BCS Written Preparation


Ad here

200x160px, feel free to contact the admin

187187
Today
Yesterday
This Week
Last Week
This Month
Last Month
All days
93
486
1719
182514
15572
17630
187187

Your IP: 54.224.214.109
Server Time: 2014-07-31 09:24:40
Full Review William Hill www.wbetting.co.uk
Google+